জাতীয়

অবৈধভাবে থাকা ৮০ হাজার বাংলাদেশীকে ফেরত পাঠানোর উদ্যোগ নিয়েছে – ইইউ

ইউরোপের বিভিন্ন দেশে অবৈধভাবে থাকা বাংলাদেশীদের জন্য খারাপ সংবাদ। সম্প্রতি সেখানে অবস্থানরত অনুমোদনহীন অভিবাসীদের ফেরত পাঠানোর উদ্যোগ নিয়েছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন-ইইউ।

এরই অংশ হিসেবে দুপুরে সচিবালয়ে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথে দেখা করে ইইউ’র একটি প্রতিনিধি দল। তাদের দাবি, ৮০ হাজার বাংলাদেশী এদের কারও বৈধ কাগজপত্র নেই। এ সময় অভিবাসীদের ফেরত পাঠাতে বাংলাদেশের সাথে চুক্তির প্রস্তাব দেয় ইইউ। তবে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশী কি না, তা যাচাইয়ের আগে কাউকে ফেরত নেয়া হবে না।
অভিবাসন প্রত্যাশী কিংবা শরণার্থী, অসহায় এ মানুষগুলোকে নিজ দেশে ফেরত পাঠানো হবে না কী ঠাঁই হবে ইউরোপে। এনিয়ে যখন দ্বিধান্বিত পশ্চিমা নেতারা ঠিক তখনই সেখানে থাকা বাংলাদেশীদের জন্য এলো দুঃসংবাদটি।

ইইউ’র সফররত একটি প্রতিনিধি দল, স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথে দেখা করে, বৈধ অনুমোদন নেই, এমন বাংলাদেশিদের ফেরত দেয়ার কথা জানান। অনুরোধ করেন শিগগিরই তাদের দেশে ফেরানোর প্রক্রিয়া শুরু করার। তারা জানান, বর্তমানে আড়াই লাখের বেশি বাংলাদেশি ইউরোপের বিভিন্ন দেশে অবস্থান করছেন। যাদের ৮০ হাজারেরই নেই, কোনো বৈধ অনুমতি। তবে তাদের পরিচয় তুলে ধরতে পারেনি প্রতিনিধি দলটি।

ইইউর এমন অবস্থানে কী করবে বাংলাদেশ এমন প্রশ্নে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর বলেন, কাউকে ফেরত আনার আগে নিশ্চিত হতে হবে পরিচয়।

বাংলাদেশিদের ইউরোপে যাওয়ার বিষয়ে একটি চুক্তিতে করতে চায় ইইউ। যার আওতায় ইউরোপে যেসব বাংলাদেশীরা যাবেন, তাদের বিস্তারিত তথ্য সংশ্লিষ্ট দেশকে দিতে বাধ্য থাকবে সরকার।
যে কোন কারনে যে কাউকেও ইইউ ফেরত পাঠালে তাদেরকে গ্রহন করতেও বাধ্য থাকবে বাংলাদেশ। আর এই ক্ষেত্রে নাগরিকত্ত নিশ্চিতে ইইউর মূল ভূমিকা পালন করবে।
মঙ্গলবার ইইউ এর প্রতিনিধি দল পররাষ্ট্রমন্ত্রীর সাথেও সাক্ষাত করবে ।

Related Articles

Back to top button
Close