বগুড়ার-সংবাদমহাস্থান

এ কেমন শত্রুতা ? রায়নগরে তিন বিঘা জমির কাটা ধানে আগুন কৃষকের মাথায় হাত

 

আব্দুল বারী মহাস্থান (বগুড়া) প্রতিনিধি ঃ শত্রতার জের ধরে বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার রায়নগর মধ্যপাড়া গ্রামের ফজলুল বারী প্রাং নামের এক কৃষকের তিন বিঘা জমির কাটা ধান আগুন লাগিয়ে পুড়িয়ে দেয়া হয়েছে বলে অভিযোগ উঠেছে। সরজমিনে গিয়ে জানা যায়, ঘটনার ২ দিন আগে কৃষক ফজলুল বারী তার তিন বিঘা জমির পাকা ধান কেটে মাড়াইয়ের জন্য বাড়ির উঠানে রেখে দেন। গত রবিবার মধ্যরাতে কে বা কারা শত্রæতামুলক ধানের পালায় আগুন লাগিয়ে দিলে তা দ্রুত পুড়িয়ে যায়। এ সময় পাশের বাড়ির এক প্রতিবেশি আগুনের ধোয়া দেখতে পেয়ে চিৎকার করতে থাকলে কৃষক ফজলুল বারী ও তার বাড়ীর লোকজন এবং বাড়ির আশেপাশের লোকজন ছুটে এসে দেখে সমস্ত ধান পুড়ে প্রায় ছাই হয়ে গেছে। কৃষক ফজলুল বারী জানান, তিন বিঘা জমিতে প্রায় ৩০/৩৫ মন ধান ছিল। ধান পুড়িয়ে যাওয়াই তিনি খুবই ক্ষতিগ্রস্থ ও হতাশাগ্রস্থ হয়ে পড়েছেন বলে জানান। ঘটনার স্থলে সাংবাদিককে দেখে বয়োবৃদ্ধ কৃষক কান্নায় ভেঙ্গে পড়েন এবং ঘটনার বিবরণ দেন। প্রতিবেশিরা জানান, কৃষক ফজলুল বারী খুব সহজ সরল ভাবে জীবন যাপন করেন এবং তার তেমন কোন শত্রæতাও নেই, তারপরও এ ধরনের কাজ যারা করছ্নে তারা আসলেই অমানুষ। স্থানীয় ইউপি চেয়ারম্যান ফিরোজ আহম্মেদ রিজু ও ১ নং ওয়ার্ডের জনপ্রিয় ইউপি সদস্য আবু রায়হান ঘটনারস্থল পরিদর্শন করেন এবং ক্ষতিগ্রস্থ পরিবারকে সান্তনা দেন।। জানা যায় গত প্রায় দুই বছর পুর্বে ফজলুর রহমানের এক ছেলে (১৭) কে হত্যা করে বাড়ীর পাশে কে বা কারা ফেলে রেখে ছিল। কৃষক ফজলুল বারী ও পরিবারের সদস্যরা জানান একের পর এক তাদের এ ধরনের বিপদ সংগঠিত হওয়ায় তারা খুবই হতাশাগ্রস্থ ও মর্মাহত হয়ে পড়েছেন। কেন এ ধরনের বিপদ সংঘটিত হচ্ছে সে বিষয়ে কোন কুলকিনারা তারা পাচ্ছে না বলে জানান। বর্তমানে এ পরিবারটি খুবই আতংকগ্রস্থ হয়ে পড়েছেন বলে জানা গেছে।

Related Articles

Back to top button
Close