গাবতলীবগুড়ার-সংবাদ

গাবতলীতে প্রেমে সাড়া না পেয়ে ছাত্রী ও তার মাকে মারপিট থানায় মামলা

গাবতলী (বগুড়) প্রতিনিধিঃ বগুড়ার গাবতলীতে প্রেমে ব্যর্থ হয়ে ১০ম শ্রেণির এক মেধাবী ছাত্রীকে বেদমভাবে পিটিয়েছে এক বখাটে যুবক। প্রতিবাদ করতে গেলে ওই ছাত্রীর মা নাছমা বেগমকেও (৩২) কুপিয়ে জখম করা হয়েছে। বর্তমানে ভূক্তভোগী ওই ছাত্রী ও তার মা গাবতলী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। গত ২৬জানুয়ারী বিকেলে উপজেলার নেপালতলী ইউনিয়নে এ ঘটনাটি ঘটে। এ ঘটনায় ভূক্তভোগী ওই ছাত্রী থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছে।

জানা গেছে, গাবতলী উপজেলার নেপালতলী ইউনিয়নের পারকাকড়া গ্রামের জহুরুল ইসলামের মেয়ে স্থানীয় সুখানপুকুর এমআরএম হাইস্কুলে বিজ্ঞান বিভাগে ১০ম শ্রেণির ছাত্রী (ক্লাস রোল নং-১)। মেধাবী এই ছাত্রীকে একই গ্রামের নুরুল ইসলামের বখাটে ছেলে রুহুল আমিন (২৩) দীর্ঘদিন থেকে প্রেমের প্রস্তাব দিয়ে রাস্তা পথে বিভিন্নভাবে উত্ত্যক্ত করতো। কিন্তু প্রেমে সাড়া না পেয়ে রুয়েন ক্ষুব্ধহয়ে উঠে। গত ২৬জানুয়ারী বিকেলে জেসি তার বান্ধবীসহ স্কুল থেকে ভ্যানযোগে বাড়ী ফিরছিলো। পথিমধ্যে কুড়িরপাড়া নামকস্থানে পৌঁছালে আগে থেকে ওঁত পেতে থাকা রুয়েন ভ্যান গাড়ীটি থামিয়ে দেয়। এরপর জেসিকে শেষবারের মতো ভালোবাসার প্রস্তাব দেয়। কিন্তু জেসি প্রেম প্রস্তাবে রাজী না হলে উভয়ের মধ্যে তর্কবিতর্ক হয়। একপর্যায়ে বখাটে রুয়েন এলোপাতারীভাবে জেসিকে কিল-ঘুষি ও লাথি মারে। এরপর জেসিকে গলাটিপে শ্বাসরোধ করে হত্যার চেষ্টা করা হয়। কিন্তু বান্ধবী ও ভ্যানওয়ালার বাধার মুখে জেসি প্রাণে রক্ষা পায়। বিষয়টি অভিভাবকদের জানালে রুয়েন আবারও জেসির উপর চড়াও হয়। এ সময় বাধা দিতে এলে জেসির মাকে বেদমভাবে পিটিয়ে জখম করে। জেসি ও তার মা এখন গাবতলী হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছে। এ ঘটনায় থানায় লিখিত অভিযোগ দেয়া হয়েছে। গাবতলীর ইউএনও মোঃ মনিরুজ্জামান ও বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোস্তাফিজার রহমান মজনু গতকাল সকালে হাসপাতালে গিয়ে জেসি ও তার মায়ের খোঁজ-খবর নিয়েছেন। তবে এ ঘটনায় জড়িত মুল নায়ক এখনও গ্রেফতার হয়নি ।

Related Articles

Back to top button
Close