সারাদেশ

গেটের তালা খুলতে দেরী হওয়ায় চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারীকে পিটিয়ে আহত

সাহাব উদ্দিন রাফেল : গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জ সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের গেটের তালা খুলতে দেরী হওয়ায় চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী মকবুলকে (৫৫) পিটিয়ে আহত করার অভিযোগ পাওয়া গেছে।আহত মকবুল চারদিন ধরে গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন থাকলেও খোঁজ নেয়নি কেউই। জানা যায়, বিদ্যালয়ের গেটের তালা খোলাকে কেন্দ্র করে গোবিন্দগঞ্জ সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়ের চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী মকবুলকে পিটিয়ে আহত করেছে একই বিদ্যালয়ের অপর দুই চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী মোকছেদ আলম মিঠু(৪৬) ও স্বদেশ(৪৬)।

প্রত্যক্ষদর্শী ও মোকবুল হোসেনের সাথে কথা বলে জানা যায় গত ০৭ সেপ্টেম্বর শনিবার ভোর পাঁচটায় মকবুলকে স্কুলের গেট খোলার জন্য বলে মোকছেদ ।এতে ভোরে তালা খুলতে অপারগতা প্রকাশ করে মোকবুল হোসেন বলেন প্রধান শিক্ষক স্কুলের গেট আট টায় খুলে দিতে বলেছে এর আগে খোলা যাবেনা।এটা শোনার পরও মকবুলকে তালা খুলতে চাপ দিলেও প্রধান শিক্ষকের নির্দেশ অমান্য করে মকবুল তালা খুলে না দেওয়ায় মোকচ্ছেদ রাগান্বিত হয়ে চলে যায়, পরে মোকচ্ছেদ অপর কর্মচারী স্বদেশকে নিয়ে সকাল আনুমানিক ১০.৩০ সময় এসে তারা দুজন মিলে এলোপাতি ভাবে আঘাত করে গুরুতর আহত করে মকবুল কে।

পরে মুমুর্ষ অবস্থায় তাকে হাসপাতালে ভর্তি করায় কয়েকজন ছাত্র। গতকাল ০৯ সেপ্টেম্বর সোমবার গোবিন্দগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে খোঁজ নিয়ে মকবুল হোসেনের সাথে কথা বললে তিনি বলেন রবিবার থেকে এ হাসপাতালে চিকিৎসা নিচ্ছি। এ কয়েকদিনে স্কুল কর্তৃপক্ষসহ কেউই খোঁজ নেইনি। তিনি আক্ষেপ করে বলেন আমাদের গরীবের খোঁজ কে রাখবে মকবুল গোবিন্দগঞ্জ পৌর শহরের বোয়ালিয়া গ্রামের লাল মিয়ার পুত্র। তিনি দীর্ঘদিন যাবৎ গোবিন্দগঞ্জ সরকারি উচ্চ বিদ্যালয়রে খন্ডকালীন চতুর্থ শ্রেণির কর্মচারী হিসেবে কাজ করছেন।

Related Articles

Back to top button
Close