গোবিন্দগঞ্জে শিশুকন্যা ধর্ষণ

rafel shahabrafel shahab
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  10:24 AM, 28 July 2021

গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে শিশুকন্যা ধর্ষণ ঘটনা ধামাচাপা দেওয়ার চেষ্টা, শিশুকন্যা ইজ্জতের মূল্য ৪০,০০০ টাকা চালিয়ে দিয়েছে ওই ওয়াডের ইউপি সদস্য।

জানা গেছে, গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার কোচাশহর ইউনিয়নের শক্তিপুর মধ্য পাড়া গ্রামের আব্দুল মান্নানের ২য় শ্রেণীর ছাত্রী মোছাঃ কুলছুম ( ৮) কে ফুঁসলিয়ে ধর্ষণ করে একই গ্রামের মৃতঃ রহিম মিয়ার পুত্র সাহেব মিয়া (৫০) ।

সরেজমিনে গিয়ে জানা গেছে, ধর্ষিতার পিতা আব্দুল মান্নান ৪০,০০০ টাকার বিনিময়ে এই ঘটনাকে মীমাংসার নামে ধামাচাপা দিচ্ছে। তিনি সাংবাদিকদের উপস্থিতিতে বলেন ইউপি সদস্য মোঃ চান মিয়া এ ঘটনা মীমাংসা করে দিয়েছে, একথা বলে তিনি তার বড় ভাই কে ডাকার কথা বলে পালিয়ে যায়। সাংবাদিকগণ দীর্ঘক্ষন মান্নান এর বক্তব্য নেওয়ার জন্য অপেক্ষা করলেও তিনি আর ফিরে আসেননি। পরে ধর্ষক মোঃ সাহেব মিয়ার বাড়িতে গিয়ে তাকে পাওয়া যায়নি, তার বাড়ি ঘরে তালা লাগানো।তিনি ঘটনার দিন থেকেই পলাতক রয়েছেন বলে প্রত্যক্ষ দর্শীরা প্রতিনিধিকে জানিয়েছেন।

শিশু ধর্ষনের বিষয়টি সচেতন মহলকে ভাবিয়ে তুলেছে। সচেতন মহলের দাবি এর একটি সুষ্ঠু বিচার হোক। ২য় শ্রেনীর ছাত্রী ধর্ষনের ঘটনায় এলাকায় চাপা ক্ষোভ বিরাজ করছে । ঘটনার ৩দিন পেরিয়ে গেলেও ইউপি সদস্যের চাপে ঘটনাটি আইনের আলোর সন্ধান পায়নি।

এবিষয়ে গোবিন্দগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (তদন্ত) মোঃ তাজুল ইসলাম কে জিজ্ঞাসা করা হলে তিনি বলেন ,” এ বিষয়ে থানায় অভিযোগ পাওয়া যায়নি, তবে খোজ নেওয়া হবে, অভিযোগ পাইলে দ্রুত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এলাকা বাসীর দাবী ধর্ষক কে আইনের আওতায় এনে শাস্তি দেওয়া হোক ।

আপনার মতামত লিখুন :