সারাদেশ

চিরিরবন্দরে নিখোঁজ স্কুল শিক্ষকের মরদেহ উদ্ধার

মো. মিজানুর রহমান (মিজান), চিরিরবন্দর (দিনাজপুর) প্রতিনিধি: দিনাজপুরের চিরিরবন্দরে নিখোঁজ চিরিরবন্দর মডেল পাইলট উচ্চ বিদ্যালয়ের কম্পিউটার বিষয়ের শিক্ষক রফিকুল ইসলামের (৪৪) মরদেহ আজ সোমবার আত্রাই নদী থেকে উদ্ধার করেছে চিরিরবন্দর থানা পুলিশ।

এ ঘটনায় এলাকায় শোকের ছাঁয়া নেমে এসেছে। রফিকুলের পরিবার সূত্রে জানা গেছে, গত ২৩ জুলাই শনিবার দিবাগত রাত ৯টায় অজ্ঞাত ব্যক্তি রফিকুল ইসলামের মুঠোফোনে কল করলে তা সুইচঅফ পাওয়া গেছে। রাত গভীর হলেও বাড়িতে ফিরে না আসায় পরিবারের দুশ্চিন্তা বাড়ে তাঁর ব্যবহৃত মোবাইলে কল করলে বন্ধ পাওয়া যায়। তারা সারারাত অনেক জায়গায় খোঁজ করেও পায়নি। তাঁকে কোথাও খুঁজে পাওয়া না যাওয়ার বিষয়টি গত ২৪ জুলাই রবিবার চিরিরবন্দর থানা ও বিদ্যালয়ে জানায় হয়।

এব্যাপারে নিখোঁজ রফিকুল ইসলামের স্ত্রী লায়লা আরজুমান্দ কান্নাজড়িত কন্ঠে জানান, রাতে কারেন্টহাটের জয়নাল মাষ্টারের জামাই মাসুদ তাকে মুঠোফোনে ডেকে নিয়ে যায়। রফিকুল ইসলামের বড় ভাই ওয়াহেদুল ইসলাম মুকুল জানান, আমরা সকল আত্মীয়-স্বজনের বাড়িতে খোঁজ নিয়েও পাইনি।

গত ২৫ জুলাই সোমবার দুপুর ১টায় উপজেলার তালপুকুর ঘাটে আত্রাই নদীতে একটি লাশ দেখে স্থানীয় লোকজন থানা পুলিশে খবর দেয়। এ সংবাদ জানতে পেরে থানা পুলিশ ও নিখোঁজ রফিকুল ইসলামের লোকজনরা সেখানে গিয়ে হাজির হন এবং রফিকুলের লাশ সনাক্ত করেন। মাঝি এমদাদ হোসেন শার্টের কলার ধরে ওই লাশ টি নদীর ওপরে তুলে আনেন।

চিরিরবন্দর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) মো. আনিছুর রহমান ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, লাশের সুরতহাল রিপোর্ট তৈরি করে ময়না তদন্তের জন্য দিমেক হাসপাতাল মর্গে প্রেরণ করা হয়েছে। এ ঘটনায় এলাকায় শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

Related Articles

Back to top button
Close