জাতীয়

পারস্পরিক সমঝোতার ভিত্তিতে তিস্তাসহ অভিন্ন নদীর পানিবণ্টন সমস্যার সমাধান হবে-ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর

সংবাদ আজকাল ঃ বাংলাদেশের সঙ্গে পারস্পরিক সমঝোতার ভিত্তিতে তিস্তাসহ অভিন্ন নদীর পানিবণ্টন সমস্যার সমাধানের আশাবাদ ব্যক্ত করেছেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী এস জয়শঙ্কর।

মঙ্গলবার রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন যমুনায় দুদেশের পররাষ্ট্রমন্ত্রী পর্যায়ের বৈঠক শেষে ব্রিফিংয়ে তিনি একথা বলেন।

সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে জয়শঙ্কর বলেন,সমঝোতার ভিত্তিতে তিস্তাসহ অভিন্ন নদীর পানিবণ্টন সমস্যার সমাধানের চুক্তি নিয়ে আগের অবস্থানেই ভারত। প্রতিশ্রুতি মোতাবেক আমরা এ চুক্তি করে যাবো।রোহিঙ্গা সঙ্কটের বিষয়ে জয়শঙ্কর বলেন, সবার সুবিধার কথা ভেবে রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে জোর দেবে ভারত। তিনি বলেন, আসামে নাগরিকপুঞ্জি বা এনআরসি ভারতের অভ্যন্তরীণ বিষয়। এটি নিয়ে কথা বলার কিছু নেই।

মঙ্গলবার বেলা ১১ টায় রাষ্ট্রীয় অতিথি ভবন যমুনায় পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেনের সঙ্গে বৈঠকে বসেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এস জয়শঙ্কর। বৈঠকে দ্বিপক্ষীয় বহু বিষয়ে আলোচনা হয়েছে।

এর আগে সকালে ধানমন্ডি ৩২ নম্বরে বঙ্গবন্ধু স্মৃতি জাদুঘরে বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধা নিবেদন করেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী। বিকেলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে বৈঠক করবেন তিনি।

সোমবার তিন দিনের সফরে ঢাকায় এসেছেন ড. এস জয়শঙ্কর। রাতে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে পৌঁছলে তাকে স্বাগত জানান পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. একে আবদুল মোমেন।

এ সময় ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী সাংবাদিকদের উদ্দেশে বলেন, পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে বাংলাদেশে আমার প্রথম সফর এটি। দুই দেশের মধ্যে আলোচনা করার মতো অনেক বিষয় আছে। আমরা দুই দেশের সম্পর্ককে নতুন উচ্চতায় নিয়ে যেতে চাই। জয়শঙ্কর আরও বলেন, বাংলাদেশে এই সফরে আসতে পেরে আমি খুবই আনন্দিত।

ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী বাংলাদেশে অবস্থানকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে সাক্ষাৎ করবেন। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার আসন্ন ভারত সফরের আগে ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর এ সফরকে খুবই তাৎপর্যপূর্ণ বলে মনে করা হচ্ছে। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা অক্টোবরের প্রথম সপ্তাহে ভারত সফরে যাচ্ছেন।

জয়শঙ্কর সফরকালে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আমন্ত্রণপত্র পৌঁছে দেবেন বলে জানা গেছে। এ ছাড়া শেখ হাসিনার সফরের বিস্তারিত কর্মসূচি এ সফরে নির্ধারণ করা হতে পারে। ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী জয়শঙ্কর ইতিপূর্বে দেশটির পররাষ্ট্র সচিব থাকাকালে বাংলাদেশ সফর করেছেন। ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির ‘প্রতিবেশী প্রথম’ নীতির আলোকে জয়শঙ্কর পররাষ্ট্রমন্ত্রী হিসেবে প্রথম সফর করেছেন ভুটান।

এবার তার সফরকালে বাংলাদেশের পক্ষ থেকে তিস্তার পানি বণ্টন চুক্তিসহ অভিন্ন নদীর পানির ভাগাভাগি, রোহিঙ্গা সংকট নিরসনে ভারতের সহযোগিতা, ভারতের ঋণের বিষয়সহ সার্বিক দ্বিপক্ষীয়, আঞ্চলিক ও আন্তর্জাতিক বিষয়ে আলোচনা হবে।

ভারতের বিজেপি সরকার দ্বিতীয় মেয়াদে ক্ষমতায় আসার পর দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রীর এটিই প্রথম ঢাকা সফর। আগামীকাল বুধবার তিনি ঢাকা ত্যাগ করবেন।

Related Articles

Back to top button
Close