সারাদেশ

(ফলোআপ) “প্রেমিকের বাড়িতে প্রেমিকার অনশন” প্রেমিক প্রেমিকার পাল্টা- পাল্টি মামলা

মোঃ আব্দুল কাদের জিলানী ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি॥ ঠাকুরগাঁও সদর উপজেলা কানিকশলগাঁও চানপাড়া নামক এলাকায় সাজেদুল রহমান সজল এর বাড়িতে বিয়ের দাবিতে এক কলেজ পড়–য়া ছাত্রী অনশন করে ।

জানা গেছে, গত ২৮শে আগষ্ট বুধবার আনুমানিক রাত ৯টায় প্রেমিকা বিয়ের দাবিতে সজলের বাড়িতে অনশন করে। এদিকে প্রেমিকার উপস্থিতি টের পেয়ে প্রেমিক পালিয়ে যায়। সেই দিন হতে আজ অবদী আমাকে সজলের মা ও বোন বিভিন্ন ভাবে শারীরিক ও মানুষিক নির্যাতন করে আসছে বলে কলেজ পড়–য়া ওই ছাত্রী সাংবাদ মাধ্যমকে জানান।

প্রেমিকা আরো বলেন, সাজেদুল রহমান সজল দীর্ঘ তিন বছর যাবৎ আমাকে বিয়ের প্রলোভন দেখিয়ে বহুবার শারীরিক ও প্রেমের স¤পর্ক করে আসছে। এখন সে আমাকে বিয়ে করতে অস্বীকার করলে আমি সজলের বাসায় অবস্থান নেই। ২৪শে জুন কল্পনা পার্কে সজল আমাকে ঘুরতে নিয়ে গিয়ে আমার ইচ্ছার বিরুদ্ধে আমার সাথে আপত্তিকর কাজ করে। ফলে স্থানীয়রা দেখে ফেলে আমাদের আটক করে। আমাদের এই ঘটনাটি বিভিন্ন জন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছেরে দেয়। তাই এখন আমাকে বিবাহ না করলে আমার আত্তহত্যা ছারা আর কোন উপায় নেই।

মামলার বিবরন থেকে জানা যায়, গত ২৪শে জুন সজল তার প্রেমিকাকে নিয়ে বুড়ির বাঁধ সংলগ্ন কল্পনা পার্কে আপত্তিকর অবস্থায় দেখতে পেয়ে স্থানীয়রা তাদের আটক করে। খবর পেয়ে প্রেমিকার দুই ভাই ঘটনা স্থলে গিয়ে তাদের প্রেমের স¤পর্কের কথা জানতে চাইলে সজল কলেজ পড়–য়া ছাত্রীকে বিবাহ করবে বলে তার ভাইদের প্রতিশ্রুতি দেয় এবং ২৪/২৫ তারিখ প্রেমিকার বাড়িতে প্রেমিকার সাথে রাত্রী যাপন করে। পরবর্তিতে প্রেমিকা তাকে বিবাহর কথা বলিলে প্রেমিক বিভিন্ন তালবাহানা শুরু করে এক র্প্রর্যায়ে তাকে বিবাহ করতে অস্বীকার করে । ফলে নিরুপায় হয়ে প্রেমিকা গত ২৬-০৬-২০১৯ তারিখে ২০০০ সালের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন আইনে রুহিয়া থানায় মামলা দায়ের করে যার মামলা নং ২।

এদিকে, সজলের পিতা বাদি হয়ে প্রেমিকাসহ ৭জনের নাম উল্লেখ করে আরো ১০/১২ জনকে অজ্ঞাতনামা দিয়ে গত, ০২-০৯-১৯ তারিখে ঠাকুরগাঁও বিজ্ঞ জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট রুহিয়া আমলী
আদালতে ১৪৩/৪৪৮/৩২৩/৩২৪/৩২৫/৩২৬/৩০৭/৩৮০/৫০৬(২)/৩৪ ধারায় মামলা দায়ের করেন।

এব্যাপারে রুহিয়া থানার অফিসার ইনর্চাজ প্রদিপ রায়ের সাথে মুঠোফোনে কথা বললে তিনি বলেন, যেহেতু বিষটি নিয়ে দুপক্ষে মামলা হয়েছে এটা আইনগত সমাধা হবে।

বিষয়টি এলাকায় চাঞ্চল্যের সৃষ্টি হওয়ায় উর্দ্ধতন কতৃক্ষের নেক দৃষ্টি কামনা করছেন এলাকার সচেতন মহল।

Related Articles

Back to top button
Close