বগুড়ার-সংবাদসোনাতলাসোনাতলা'র সংবাদ

বগুড়া সোনাতলায় ৭দিন ব্যাপী ইসলামী বই মেলা বন্ধ হওয়ায় সামাজিক যোগাযোগ ফেসবুকে নিন্দার ঝড়

সংবাদ আজকাল ডেক্সঃ পহেলা রমজান বগুড়া সোনাতলা ঘোরাপীর নামক স্থানে অবস্থিত আন-নুর সাইন্টিফিক মাদ্রাসায় প্রথম বারের মত লাইটসীপ ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে ৭ দিন ব্যাপী বই মেলায় আয়োজন করে। মেলাটির উদ্বোধন করেন,উপজেলা নির্বাহী অফিসার শফিকুর আলম,সাথে ছিলেন,ম্যাধমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আজিজুর রহমান। এ বিষয়ে মেলা আয়োজকারী লাইটসীপ ফাউন্ডেশনের চেয়ারম্যান গোলাম রব্বানী রোমান এর কাছে মেলা বন্ধ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি সংবাদ আজকালকে জানান,সারা দেশের ন্যায় ইসলামী বই সমূহ নিয়ে আমরা এ মেলার আয়োজন করেছি, যেখানে প্রধান অতিথি হিসেবে ছিলেন ,সোনাতলা উপজেলা চেয়ারম্যান এ্যাড.মিনহাদুজ্জামান লিটন,সভাপতি হিসেবে ছিলেন, উপজেলা নির্বাহী অফিসার সফিকুর আলম,বিশেষ অতিথি ছিলেন,সোনাতলা থানার অফিসার ইনচার্জ আব্দুল্লাহ্ আল মাছউদ চৌধুরী ,ভাইস চেয়ারম্যান,জাকির হোসাইনসহ গণ্যমান্য ব্যাক্তি বর্গ। যাদের প্রত্যকজনকে মেলা শুরুর আগে অবগত করে তাদের নামে ব্যানার ফেসটুন ও লিফলেট ছাপাই। এবং উদ্বোধনী দিনে উপজেলা চেয়ারম্যান সাহেব অন্য কাজে ব্যাস্ত থাকায় ওনার অনুমতি নিয়ে উপজেলা নির্বাহী অফিসার শফিকুর আলম স্যার উদ্বোধন করেন,পরের দিন,সকালে মেলা পরিদর্শন করার জন্য সোনাতলা থানা অফিসার ইনচার্জ স্যারকে আমন্ত্রন জানাইতে গেলে উনি ,আমাদের নামে বিভিন্ন অভিযোগ আছে বলে বসতে বলে উপজেলায় একটি মিটিং এ যান,৩ ঘন্টা বসে থাকার পর ওসির নির্দেশে সাংবাদিক ও এসআই মহিউদ্দিনসহ তিন জন পুলিশ তদন্ত করতে যান। তদন্ত শেষে তারা আমাদের লিখিত অনুমতি না থাকায় মেলাটি বন্ধ করার নির্দেশ দেন মেলা বন্ধ করবো মর্মে একটি লিখিত নিয়ে আমাদের ছেড়ে দেন। মেলা সর্ম্পকে উপজেলা চেয়ারম্যান এ্যাড.মিনহাদুজ্জামান লিটন সংবাদ আজকাল কে জানান, তারা আমাকে আমন্ত্রন জানাই ছিল ,কিন্তু একই সময়ে বিভিন্ন শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রধানদের মানসম্মত শিক্ষা নিয়ে মতবিনিময় অনুষ্ঠান থাকায় উপস্থিত হতে পারিনী, বন্ধ হওয়ার কারন তিনি জানেন না বলে জানান। এ বিষয়ে ওসি আব্দুল্লাহ্ আল মাছউদ চৌধুরীর সাথে মুঠোফোনে যোগাযোগ করলে তিনি জানান, বিভিন্ন অভিযোগ থাকায় আপাতত মেলাটি বন্ধ রাখা হয়েছে। এদিকে ওই ইসলামি বই মেলা বন্ধ হওয়ায়,সামাজিক যোগাযোগ ম্যাধ্যম “ফেসবুকে” এধরনে ইসলামী বই মেলা বন্ধ করে দেওয়ার অনেকে নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বই মেলাটি চালানোর অনুমতি দিতে প্রসাশনের দৃষ্ঠি আকর্ষন করেছেন, এব্যাপারে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম “ফেসবুকে” এ এসএম সায়েম রাশেদ,নামে একটি আইডিতে পোষ্ঠ দিয়েছেন,ইসলাম বিদ্বেশি কিছু মানুষ সরকারকে বিব্রত কর অবস্থায় ফেল তে চায়,শাহারুল লাজু(SAHARUL LAZU) লিখেছেন,আমি তিব্র নিন্দা জানাচ্ছি এবং এও জানাচ্ছি মুসলিম প্রধান দেশে মুসলমানদের ধর্মীয় বিষয়ে বিরোধিতা কারীরা কাফের নাস্তিক। তাদের অশ্লীলতা বন্ধে মুসলিম যুবকদের এগিয়ে আসার আহবান জানাই। জামাত শিবির লেবেলের দোহাই দিয়ে এভাবে শান্তির ধর্মের প্রতি অবিচার কাম্য নয়। (TAHER BIN JAMAN লিখেছেন,কি বিতর্ক ??? বলা হয়েছে ইসলামী বই মেলা সেখানে আবার বিতর্ক কিসের??? ঢাকায় বায়তুল মোকাররম চত্বরসহ সাড়া দেশে ইসলামি বই মেলা চলছে কোথাও তো প্রসাশন বন্ধ করেনি!!! এখানে কেন বন্ধ হবে??? বিষয়টা ভাল হলো না!!!। একটি অনলাই পত্রিকায় বন্ধ হওয়ার রিপোর্ট প্রকাশের পর এমন অসংখ কমেন্ট পোষ্ট দিচ্ছেন অনেকে সোস্যাল মিডিয়ায়।

Related Articles

Back to top button
Close