সারাদেশ

বিয়ের স্বীকৃতির দাবীতে তরুণীর স্বামীর বাড়ীতে অবস্থান,মারধরের অভিযোগ

কালিয়াকৈর(গাজীপুর)প্রতিনিধি
বিয়ের স্বীকৃতির দাবীতে এক তরুনী স্বামীর বাড়িতে গিয়ে অবস্থান কর্মসুচী করছে। রোববার সকাল থেকে আশুলিয়া থানার শিমুলিয়া ইউনিয়নের নাল্লাপোল্লা এলাকায় ওই তরুনীর স্বামী আল-আমীনের বাড়ীতে অবস্থান নেয়। পরে স্বামীর বাড়ীর লোকজন তার উপর নির্যাতন চালায় ও বেধরক মারধর করে। বিকেলে কৌশলে তাদের হাত থেকে পালিয়ে এসে ৯৯৯ নম্বরে ফোন দিলে পুলিশ স্থানীয় থানায় যোগাযোগের জন্য পরামর্শ দেয়।
ওই তরুনী জানায়, দীর্ঘদিন প্রেমের সম্পর্কের পর ওই তরনীর সাথে আশুলিয়ার নাল্লাপোল্লা এলাকার ইমান আলীর ছেলে আল-আমীন সাথে চলতি বছরের মার্চ মাসে বিয়ে হয় । বিয়ের পর স্বামী স্ত্রী দুইজনে মিলে গাজীপুর মহানগরের ভাওয়াল বদরে আলম সরকারী কলেজের পাশে বসা ভাড়া নিয়ে থাকে। এর পর বিয়ের কিছুদিন পর থেকে তাকে যৌতুকের জন্য চাপ সৃষ্টি করে। যৌতুক দিতে না পারায় তিন মাসের গর্ভবতী ওই নারীকে শাররিক ও মানুষিকভাবে নির্যাতন করতে থাকে। এঘটনায় ওই নারী বাদী হয়ে কালিয়াকৈর থানায় একটি নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে মামলা দায়ের করে। এঘটনার পর গতকাল রোববার সকালে স্বীকৃতির দাবীতে স্বামীর বাড়ীতে গিয়ে অবস্থান নেয়। এসময় স্বামীর পরিবারের লোকজন তাকে মারধর করে। এ সময় স্বামী আল-আমীনের বন্ধু ও সহযোগী নাল্লাপোল্লা এলাকার রাকিব এবং কালিয়াকৈর এলাকার বিপুল রায়হান নারীর কাছ থেকে কৌশুলে তার বিয়ের কাবিন নামা,মোবাইল, ভ্যানিটি ব্যাগসহ টাকা কেড়ে নিয়ে ওই নারীকে মারধর করে বাড়ী থেকে তাড়িয়ে দিতে সহযোগীতা করে। নিরুপায় হয়ে ওই নারী ৯৯৯ নম্বরে ফোন করলে স্থানীয় থানায় যোগাযোগের পরামর্শ দেন। পরে আশুলিয়া থানায় গিয়ে মামলা দায়েরের প্রস্তুতি নিচ্ছে বলেও জানায় ওই তরুনী ।
এব্যাপারে কালিয়াকৈর থানার উপ-পরিদর্শক মোহাম্মদ সোহেল রানা জানান, এবিষয়ে কালিয়াকৈর থানায় মামলা হয়েছে। আসামী হাইকোর্ট থেকে জামিনে রয়েছেন।

Related Articles

Back to top button
Close