শিবগঞ্জ

মোকামতলা এসএমএ দাখিল মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতার কবর ৩৮ বছর পর স্থানান্তর

রশিদুর রহমান রানা শিবগঞ্জ (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার মোকামতলা শাহ মোকাম আলিমউদ্দিন দ্বি-ম‚খী (এসএমএ) দাখিল মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা মরহুম আলিমউদ্দীনের কবর ৩৮ বছর পর স্থানান্তর করা হয়েছে।

জানা যায়, রংপুর-বগুড়া মহাসড়ক সমপ্রসারণ জনিত কারণে মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা মরহুম আলিমউদ্দীনের কবর বিশ্বরোড থেকে মাদ্রাসার মাঠে স্থানান্তর করা হয়। প্রতিষ্ঠাতা জীবদ্দশায় মোকামতলা শাহ মোকাম আলিমউদ্দিন দ্বি-ম‚খী দাখিল মাদ্রাসায় দ্বীনি শিক্ষার জন্য এক একর জমি দান করেন। তার সহযোগিতায় মাদ্রাসাটি ১৯৭৬ সালে প্রতিষ্ঠা লাভ করে।

তিনি বার্ধক্যজনীত কারণে ১৯৮২ সালের ১৪ই আগষ্ট মৃত্যুবরণ করেন। একই সাথে মরহুম আলিমউদ্দিনের দুই সহধর্মিণী মরহুমা সুরাতুন নেছা ও মরহুমা রুবি বেগমের কবরও স্থানান্তর করা হয়। মাদ্রাসার সভাপতি এফএম মনজুর রায়হান রোজ বলেন, প্রতিষ্ঠাতা মরহুম আলিমউদ্দিন একজন উদারমনের মানুষ ছিলেন।

নৈতিক দায়িত্বানুভ‚তির কারণে তার কবরটি স্থানান্তর করা হয়েছে। মোকামতলা শাহ মোকাম আলিমউদ্দিন দ্বি-ম‚খী দাখিল মাদ্রাসার সুপার মাওঃ আনোয়ারুল ইসলাম বলেন, বিশ্বরোড জমি অধিগ্রহনের কারণে ইসলামী বিধান ও শরিয়ত মোতাবেক মাদ্রাসার প্রতিষ্ঠাতা মরহুম আলিমউদ্দিনের কবরটি স্থানান্তর করে মাদ্রাসা মাঠে পুনরায় কবর দেওয়া হয়।

কবর স্থানান্তর শেষে আয়োজিত দোয়া অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন মাদ্রাসা সভাপতি এফএম মনজুর রায়হান রোজ, সুপার মাওঃ আনোয়ারুল ইসলাম, সহ-সুপার ছাইফুল ইসলাম, প্রবীণ শিক্ষক আলহাজ্ব মতিয়ার রহমান, আব্দুল হামিদ, উপজেলা যুব লীগের সাধারণ সম্পাদক ওমর ফারুক, মোকামতলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ফজলুর রহমান, প্রতিষ্ঠাতার জামাই আলহাজ্ব ক্বারী জনাব আলী, আলহাজ্ব আবু বক্কর সিদ্দিক, মাদ্রাসা শিক্ষক মাওঃ ফেরদৌস রহমান, আলী মর্তুজা, ত্বোহা হোসেন, রনজু মিয়া, মিজানুর রহমান, নুরুল আলম, রুহুল আমিন, নাসরিন সুলতানা, আবু তাহের, মুসা মিয়া, ছাবিনা ইয়াছিন, লায়লা আরজুমান বানু প্রম‚খ।

Related Articles

Back to top button
Close