গাবতলীবগুড়ার-সংবাদ

শত বছরের পুরানো গাবতলীর সরধনকুটি প্রাথমিক বিদ্যালয়টি নানা সমস্যায় জর্জরিত কর্তৃপক্ষের হস্তক্ষেপ কামনা

গাবতলী (বগুড়া) প্রতিনিধি ঃ বগুড়া গাবতলীর ২০নং সরধনকুটি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়টি শত বছরের পুরানো হলেও নানা সমস্যায় জর্জরিত রয়েছে। এ ছাড়া স্থানীয় সোনারায় ইউনিয়নে ১৭টি প্রাথমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের কেন্দ্র এই বিদ্যালয়টি। তাছাড়া ৩টি স্বতন্ত্র ইবতেদায়ী মাদ্রাসা তো আছেই। বিদ্যালয়টি প্রাথমিক সমাপনী (পিইসি) পরীক্ষা কেন্দ্র হওয়ায় শিক্ষার্থীদের তুলনায় জায়গা না থাকায় বিদ্যালয়ের ম্যানেজিং কমিটি ও শিক্ষকগণ ডেকোরেটার থেকে ভাড়া করে কাপড় দিয়ে ঘিরে এবং টিনের ছাউনীর মধ্য কমলমতি ছাত্র-ছাত্রীদেরকে সমাপনী (পিইসি) পরীক্ষা দেয়ার ব্যবস্থা করেছেন। প্রাথমিক সমাপনী (পিইসি) পরীক্ষার্থীরা ওই ছাউনীর নিচে অতি কষ্ট করে পরীক্ষা দিচ্ছে। ১৯১৪ সালে বিদ্যালয়টি স্থাপিত হলে শত বছর পেরিয়ে গেছে। শিক্ষারমানও একে বারে কম নয়। সেই তুলনায় বিদ্যালয়ের অবকাঠামোর তেমন উন্নয়ন হয়নি। চাহিদার তুলনায় বিল্ডিং নেই, নেই চেয়ার-টেবিল, প্রয়োজন শতাধিক জোড়া ব্রেঞ্চ, ছাত্র-ছাত্রীদের নিরাপত্তার জন্য অতি জরুরী হয়ে পড়েছে সস্পূর্ণ প্রাচীর নির্মাণ, গেট নির্মাণ করা, প্রয়োজন বিদ্যালয়ের মাঠে মাটি ভরাট করা। এ ছাড়া আরো নানা সমস্যা জর্জরিত রয়েছে বিদ্যালয়টি। ফলে শিক্ষার আরো মানন্নোয়নে সংশ্লিষ্ঠ কর্তৃপক্ষের সুদৃষ্টি ও আসু হস্তক্ষেপ কামনা করেছেন এলাকার শিক্ষানুরাগীরা। এ ব্যাপারে বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জাহেদুল ইসলামের সাথে কথা বললে তিনি জানান, জায়গা (রুম) ও ব্রেঞ্চের সমস্যা থাকার কারনে অনেক কষ্ট করে সমাপনী পরীক্ষা নেয়া হচ্ছে। বিদ্যালয়ের সভাপতি মুহাম্মাদ আবু মুসা ও সহ-সভাপতি ডাঃ শাহাদৎ হোসেনও নানা সমস্যার কথা তুলে ধরে বলেন বিদ্যালয়ের নানা সমস্যার বিষয়ে সংশ্লিষ্ঠ কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে। তাঁরা আরো জানান শত বছরের পুরানো বিদ্যালয়টির সমস্যা গুলো সমাধান না হলে শিক্ষা কার্যক্রমের বেঘাত ঘটবে।

Related Articles

Back to top button
Close