বগুড়ার-সংবাদমহাস্থান

শিবগঞ্জের চন্ডিহারায় তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে মারপিট দশম শ্রেণির ছাত্রী সহ হাসপাতালে ভর্তি, থানায় অভিযোগ

আব্দুল বারী মহাস্থান (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ মঙ্গলবার বিকেলে বগুড়ার শিবগঞ্জ উপজেলার চন্ডিহারা গ্রামে তুচ্ছ ঘটনাকে কেন্দ্র করে ১০ম শ্রেণির ছাত্রী সহ পরিবারের ৫/৭জনকে মারপিট, বাড়ী ঘর ভাংচুর, লুটপাট ও থানায় অভিযোগের সংবাদ পাওয়া গেছে।

সরেজমিনে ও ভুক্তভোগী সুত্রে জানাগেছে, মঙ্গলবার বিকেলে চন্ডিহারা গ্রামের ইদ্রিস আলী ৫/৬মাস পূর্বে তার মেয়ে আয়েশাকে গাবতলী উপজেলার নাংলু গ্রামে বিয়ে দেয়। বিয়ের পর থেকে সেখানে আয়েশার শশুর বাড়ী লোকজনের সাথে মিলামেশ না হওয়ায় মাঝেমধ্যে ঝগড়া বিবাদ লেগে থাকে। এ ঘটনায় ইদ্রিস আলী তার প্রতিবেশী জাহেদুল ইসলাম ও তার পরিবারকে দায়ী করে মাঝেমধ্যেই ঝগড়া বিবাদে লেগে থাকে। এরই সুত্র ধরে গতকাল ইদ্রিস আলীর লোকজন লাঠিসোটা নিয়ে জাহেদুলের বাড়ীতে হামলা করে বাড়ীঘর ভাংচুর করে এবং জাফরিনের গলায় থাকা ৪ আনি স্বর্ণের ও ৩ আনি স্বর্ণের দুল জোর পূর্বক কেরে নিয়ে যায়। এ ঘটনায় জাফরিন, স্বামী রাজু আহম্মেদ, চন্ডিহারা বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্রী শাকিলা, পঞ্চম শ্রেণির ছাত্র হাসান, ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্র জনি এবং তার মা বেগমসহ পরিবারের ৫/৭জনকে মারপিট করে। আহতদের মধ্যে শাকিলা, জাফরিনকে গুরুত্বর অবস্থায় শিবগঞ্জ থানা স্বাস্থ্য কমপেক্স এ ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় বাদী হয়ে জাহেদুল ইসলাম শিবগঞ্জ থানায় (১) ইদ্রিস আলী, (২) ইব্রাহীম হোসেন, (৩) আবু বক্কর ছিদ্দিক, (৪)ওমর আলী, (৫) ইয়াকুব আলী, (৬) হযরত আলী, সর্বপিতা মোজফ্ফর হোসেন, (৭) ইমরান হোসেন, পিতা: মোনছের আলী সহ অজ্ঞাত ১০/১৫ জনকে আসামী করে শিবগঞ্জ থানায় একটি অভিযোগ দায়ের করেছে বলে জাহিদুলের পরিবার সুত্রে জানাগেছে। এ ঘটনায় উভয় পরিবারের মধ্যে চাপা উত্তজনা বিরাজ করছে।

Related Articles

Back to top button
Close