সোনাতলা'র সংবাদ

সাংবাদিক মামুনকে মারপিটের ঘটনা সোনাতলায় আসামী পাবলিক পরীক্ষায় অংশ নিলেও পুলিশ তাকে খুঁজে পাচ্ছে না!

ঃ বগুড়ার সোনাতলায় সাংবাদিক মামুনকে মারপিটের ঘটনায় মামলা দায়ের হলেও থানা পুলিশ গত ৯ দিনেও কোন আসামীকে গ্রেফতার করতে পারেনি। এমনকি আসামীদের মধ্যে একজন প্রকাশ্যে পরীক্ষা কেন্দ্রে গিয়ে পরীক্ষায় অংশ নিলেও পুলিশ আসামীকে খুঁজে পাচ্ছে না।

গত ৪ জুন দৈনিক আমাদের সময় পত্রিকার সোনাতলা উপজেলা প্রতিনিধি ও অন লাইন পত্রিকা সোনাতলা সংবাদ এর সম্পাদক এবং সিএইচসিপি মামুন উপজেলার বালুয়া ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচনে ধর্মকুল কেন্দ্রে পোলিং অফিসারের দায়িত্ব পালন শেষে সন্ধ্যায় কেন্দ্রের পাশে একটি বাড়িতে রাখা মোটর সাইকেল আনতে যাওয়ার পথে মুখ চেনা ৮/১০ জনের এক দল সন্ত্রাসী তাকে পিছন থেকে এসে আক্রমন করে। এ সময় তাদের এলোপাথারি মারপিটে সাংবাদিক মামুন জ্ঞান হারিয়ে মাটিতে লুটিয়ে পড়লে স্থানীয় লোকজন তাকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ভর্তি করান। পরদিন সাংবাদিক মামুন বাদী হয়ে ৮ জনকে আসামী করে থানায় মামলা দায়েরন করেন। মামলা নং-৪। মামলা দায়ের হওয়ার ৯ দিন অতিবাহিত হলেও পুলিশ আজও কোন আসামীকে গ্রেফতার করতে সক্ষম হয়নি।

এ বিষয়ে সোনাতলা থানার ওসি মোঃ আব্দুল মোত্তালিব ও মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা মিনার হোসেন জানান, অভিযুক্ত আসামীদের খুঁজে পাওয়া যাচ্ছে না।

এদিকে সোনাতলা উপজেলার স্থানীয় সাংবাদিকগণ গত বুধবার সোনালী ব্যাংক মোড়ে আসামীদের গ্রেফতারের দাবিতে মানব বন্ধন কর্মসূচি পালন করেন। সেই কর্মসূচি থেকে সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ প্রশাসনের প্রতি আসামী গ্রেফতারের আহবান জানান। অনতি বিলম্বে আসামী গ্রেফতার করা না হলে বিভিন্ন কর্মসূচি ঘোষনা করবে বলে সাংবাদিক নেতৃবৃন্দ এক বিবৃতিতে জানান।

উল্লেখ্য, ওই মামলার ১নং আসামী মনির চলতি বছরের উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষায় ড. এনামুল হক কলেজের পরীক্ষার্থী হিসেবে সোনাতলা সরকারী নাজির আখতার কলেজ কেন্দ্রে গত ১২ জুন অংশ নেয়। এদিকে পুলিশ তাকে খুঁজে পাচ্ছে না বলে স্থানীয় সাংবাদিকদের জানান।

Related Articles

Back to top button
Close