সারাদেশ

সাতক্ষিরায় শিশু ধর্ষক আসামি সাদ্দাম হোসেন এখনো গ্রেফতার না হওয়ায় জনমনে খোভ

সাজমিন সাথি সাতক্ষিরা থেকেঃ সাতক্ষিরা জেলার,কলারোয়া উপজেলায় জালালাবাদ গ্রামের ৮ম শ্রণীর ছাত্রী ধর্ষণ। জানাযায় একই গ্রামের মফিজুল ইসলাম এর ছেলে, সাদ্দাম হোসেন (২৪), গত ১৩ এপ্রিল বিকাল ৫টার দিকে ৮ম শ্রের্নীর ছাত্রীকে পাশের বাড়িতে নিয়ে ঝড় বৃষ্টি মধ্যে জোর পূর্বক ধর্ষণ করে। ঘটনাটি ঘটার কয়েক দিন পর ছাত্রী অসুস্থ হয়ে পড়ে,অসুস্থ হওয়ার পড় তার মাকে সে ঘটনাটি খুলে বলে। তারপর তার মা শুনলে গ্রাম শালিস এর ব্যাবস্থা হয়, সেখানে কোনো সুষ্ট বিচার না হয়ায় শনিবার (২৭) এপ্রিল কলারোয়া থানায় এসে ২০০০ সালের নারী নির্যাতন দমন আইনের ৯(১) ধারার একটা ২২(৪)১৯ নং মামলা দায়ের করা হয়। এই মামলার ভিক্টম নিজে জানায় যে ধর্ষণ এর কয়েক দিন আগের থেকে আসামি সাদ্দাম তার প্রতিবেশি হয়ায় ভিক্টিম এর বাড়ির আশে পাশে ঘুরা ঘুরি করতো । আর ধর্ষন এর পর থেকে এখনো আসমি ফেরার।পুলিশের সাড়াসি অভিযান এখনো পর্যন্ত অব্যাহত আছে। ধর্ষনের ঘটনাকে কেন্দ্র করে এলাকার মানুষের মনে খোভের সৃষ্টি লক্ষনীয়। আসামী গ্রেফতার ও সুষ্ঠ বিচার কার্য সম্পন্ন না হওয়া পর্যন্ত এলাকাবাসী খোভ ও আন্তক্তের মধ্যে বিরাজমান।ভিক্টিম এর পরিবার এখনো পর্যন্ত প্রশাসন এর উপর আস্থা করে আছে। আসামি সাদ্দাম হোসেন ফেরার থাকার কারনে গ্রামবাসি ভয়ে ও আতঙ্কে দিন যাপন করছেন।এদিকে সামাজিক যোগাযোগ এর মাধ্যমে আসামি সাদ্দাম হোসেনের(সাদ্দাম খান)নামে যে ফেসবুক একাউন্ট আছে সেটি লক ও আন এক্টিভ করে রেখেছে। আসামি পরিবারের পক্ষ থেকে আসামি সাদ্দাম হোসেন কে নির্দোষ ও ঘটনাটি চক্রান্তমুলক বানোয়াট বলে অবহিত করেছেন। এছাড়াও এলাকাবাসীর কাছ থেকে জানা যায় আসামি সাদ্দাম হোসেন এর এই ধর্ষণ ঘটনা পূর্বে ও অনেক নারী ঘটীত অপকমের কথা জানা গেছে।

Related Articles

Back to top button
Close