সারাদেশ

সাতক্ষীরার কলারোয়ায় লাইসেন্স ছাড়াই চলছে যত্র তত্র গ্যাস সিলিন্ডার বিক্রয় ব্যবসা

সাজমিন সাথীঃ   লাইসেন্স বিহীন এলপি গ্যাসের রমরমা ব্যবসা চলছে মফস্বল বাজার সাতক্ষীরা জেলার কলারোয়া উপজেলার বাজারগুলোতে।
অত্যন্ত ঝুকিপূর্ণ ও বিপদজনক এল পি গ্যাস সিলিন্ডার বিক্রির জন্য বিস্ফোরক লাইসেন্স, ফায়ার লাইসেন্স, মাল মজুদের জন্য গোডাউন লে আউট নক্সা থাকা বাধ্যতামূলক হলেও তা মানা হচ্ছে না কোথাও। আবার বিষ্ফোরক লাইসেন্স অনুযায়ী একজন ডিলারের ৪০/৬০ বোতল গ্যাস মজুদ রাখার অনুমতি থাকলেও কৌশলে বিভিন্ন স্হানে কয়েক শত বোতল সিলিন্ডার মজুদ করছে ডিলাররা,এরপরও একজন ডিলারের অনুমোদিত  এক কোম্পানির সিলিন্ডার রাখার নিয়ম থাকলেও বিভিন্ন কোম্পানির সিলিন্ডার পাইকারী ও খুচরা বিক্রি করেছেন তারা।
কলারোয়া উপজেলা সদর ও ১২টি ইউনিয়নের মফস্বলের বাজার গুলোতে চলছে লাইসেন্স বিহীন এল পি গ্যাসের অত্যন্ত ঝুকিপূর্ণ  ব্যবসা। খোজ নিয়ে দেখা গেছে কলারোয়া উপজেলা বাজারে যমুনা,টোটাল,ওরিয়েন্ট,নাভানা,প্রোমিকা,ও প্লাস্টিক বোতল এল পি গ্যাস সিলিন্ডার বিক্রির জন্য ৫জন ডিলারের মধ্যে ২/১ জনের বৈধ কাগজ পত্র আছে। কেহ কেহ ভূয়া কাগজ দেখিয়ে ব্যবসা চালিয়ে যাচ্ছেন। কারোর আবার বিস্ফোরক লাইসেন্স নাই নাম মাত্র ফায়ার লাইসেন্স দিয়ে ডিলারশিপ চালিয়ে যাচ্ছেন। এছাড়াও প্রায় পঞ্চাশোর্ধ দোকানে গ্যাস বিক্রি হচ্ছে যাদের গ্যাস সিলিন্ডার বিক্রি করার মতো কোন  লাইসেন্স নাই। বৈধ  অবৈধ সিলিন্ডারের দোকান, গোডাউনে( ফায়ার ফাইটিং)অগ্নি নির্বাপক  উপকরন সংরক্ষণ থাকার কথা থাকলে অনেক স্হানেই নাই এবং এগুলো ব্যবহারে অভিজ্ঞতা আছে এমন কোন ব্যক্তি সেখানে নাই। সব মিলিয়ে অনিয়মের যেন শেষ নাই এই গ্যাস ব্যবসায়ীদের।
অন্যদিকে কলারোয়া উপজেলার মফস্বলের বড় বড় বাজার কাজিরহাট,গয়ড়া,চান্দুড়িয়া,সোনাবাড়িয়া,বুঝতলা,হিজলদী,সুলতানপুর, লাঙ্গল ঝাড়া, কাকডাংগা,,বোয়ালিয়া,সিংগা,ব্রজবাকসা,কুশোডাংগা, খোর্দ্দ,শরসকাটি,ধানদিয়া,জালালাবাদ, কয়লা,রায়টা,দেয়াড়া,যুগিবাড়ি,হরিনা গোয়ালচাতর,সহ বিভিন্ন বাজার গুলোতেও লাইসেন্স বিহীন গ্যাস বিক্রি করছে। সে সব দোকান গুলোতে গ্যাস সিলিন্ডার রাখার মতো নিরাপদ জায়গা নাই, দোকানের নিত্য প্রয়োজনীয়   মালামালের সাথে গাদাগাদি করে এই ঝুঁকিপূর্ণ গ্যাস সিলিন্ডার রাখা হচ্ছে।
নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক অনেকেই অভিযোগ করেন বাজারদর ছাড়া সিলিন্ডার প্রতি ৫০ থেকে ৮০ টাকা পর্যন্ত বেশী দাম নিচ্ছে মফস্বল দোকানগুলো। হাতের নাগালে পাওয়াতে খরিদদারেরা কোন প্রতিবাদ করেন না। ইদানিং উপজেলা সহ মফস্বল বাজারেও দেখা গেছে সাতক্ষীরা জেলা শহরের ডিলারদের মাধ্যমে গাড়ি গাড়ি সিলিন্ডার কিনে গোপন স্টোরে মজুদ করে দোকানে ২/৪টি সিলিন্ডার রেখে বিক্রি করতে। এতে একদিকে যেমন থাকছে অনাকাঙ্খিত বিপদের ঝুকি অপরদিকে সরকারকে ভ্যাট,ট্যাক্স,  লাইসেন্স ও বছর বছর নবায়ন বাবদ আর্থিক ক্ষতিতে পড়তে হচ্ছে। এদিকে সরকারের সকল নিয়ম কানুন মেনে ৩০/৩৫ হাজার টাকা দিয়ে লাইসেন্স করে এ ব্যবসায় ক্ষতির মুখে পড়ছে প্রকৃত ব্যবসায়ীরা এমনটা  আক্ষেপ করে জানিয়েছেন কলারোয়া উপজেলার একজন গ্যাস ব্যবসায়ী।
লাইসেন্স বিহীন গ্যাস ব্যবসায়ীর ব্যপারে খুলনা বিভাগীয় বিষ্ফোরক লাইসেন্স প্রদানকারী কর্তৃপক্ষ সাতক্ষীরা জেলার দায়িত্বপ্রাপ্ত পরিদর্শক মোঃ জাফর উল্ল্যাহ’র সাথে কথা হলে তিনি বলেনঃজেলা, উপজেলা বা মফস্বল বাজারে কোন ব্যবসায়ী যদি ডিলারশিপ না নিয়ে দোকানে অন্যান্য দ্রব্যাদির সাথে গ্যাস সিলিন্ডার বিক্রি করে সে ক্ষেত্রে ঐ ব্যবসায়ী সর্বোচ্চ ৫/৬টি সিলিন্ডার দোকানে নিরাপদ জায়গায় রেখে বিক্রি করতে পারবে। এর বেশী সিলিন্ডার মজুদ রেখে বিক্রি করতে হলে তাকে বৈধ লাইসেন্স করে তারপরে গ্যাসের ব্যবসা করতে হবে এর ব্যত্যয় হলে বিভাগীয় বিস্ফোরক নিয়ন্ত্রণ অফিস এবং স্হানীয় থানা কর্তৃপক্ষ ঐ ব্যবসায়ীর বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করবে।
এ ছাড়াও লাইসেন্স বিহীন  ব্যবসায়ীর দোকানে গ্যাস দ্বারা কোন দূর্ঘটনা হলে ঐ ব্যবসায়ী এবং দোকান মালিক প্রশাসনিক এবং সরকারীভাবে ক্ষতি পুরন পাবেন না।

Related Articles

Back to top button
Close