সোনাতলা'র সংবাদ

সোনাতলায় ইউপি নির্বাচনে ব্যাপক সহিংসতা আহত ২৫ ঃ ভোট কারচুপির অভিযোগে ৫ চেয়ারম্যান প্রার্থীর ভোট বর্জন

সোনাতলা ( বগুড়া) প্রতিনিধিঃ বগুড়ার সোনাতলা উপজেলার বালুয়া ইউনিয়ন পরিষদের নির্বাচন বিক্ষিপ্ত সহিংসতার মধ্য দিয়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রতিপক্ষ চেয়ারম্যান প্রার্থীদের নির্বাচনী এজেন্টদের ভোট কেন্দ্র থেকে বের করে দেওয়া, কারচুপি ও অনিয়মের অভিযোগে ভোট বর্জন করেছে বিএনপি মনোনিত প্রার্থীসহ অপর ৫ প্রার্থী। নির্বাচনে বিভিন্ন কেন্দ্রে ইউপি সদস্য পদে প্রতিদ্ব›িদ্ব প্রার্থীদের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে। সংঘর্ষে উত্তর দিঘলকান্দি গ্রামের খোকা মিয়ার ৩ পুত্র হেলাল (৪৫), বেলাল (৩০) ও রতন গুরুতর আহত হয়েছে। তাদেরকে প্রথমে সোনাতলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে ও পরে উন্নত চিকিৎসার্থে বগুড়া শহীদ জিয়াউর রহমান মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে প্রেরণ করা হয়েছে। এদের মধ্যে হেলালের অবস্থা আশংকাজনক। অন্যান্য আহতরা হলেন- উত্তর আটকড়িয়া গ্রামের জিন্নাত(৩০), শাহারুল (২২), সজিব (১৯) দিঘলকান্দি গ্রামের আতিকুর (৪৫) ও কাইয়ুম (৪৫)। রানী ১৮ দাউদপুর, নির্বাচনে আইন-শৃংখলা বাহিনীর পর্যাপ্ত উপস্থিতি থাকলেও বিক্ষিপ্তভাবে এসব সংঘর্ষের ঘটনা ঘটে। যে কেন্দ্রগুলোতে সংঘর্ষের ঘটনা ঘটেছে সে কেন্দ্রগুলো হলো- দাউদপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, বালুয়াহাট উচ্চ বিদ্যালয়, উত্তর আটকড়িয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় ও ছোট বালুয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। নির্বাচন বর্জন ব্যাপারে স্বতন্ত্র চেয়ারম্যান প্রার্থী ও বর্তমান চেয়ারম্যান প্রভাষক নাছির উদ্দিন আনজু এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী আব্দুল কাইয়ুম জানিয়েছেন, কোন কেন্দ্রে আওয়ামী লীগ মনোনিত প্রার্থীর এজেন্ট ছাড়া অন্য কোন প্রার্থীর এজেন্টরা তাদের দায়িত্ব পালন করতে পারেনি। অনেক কেন্দ্র থেকে তাদের এজেন্ট দের বের করে দেওয়া হয়েছে। এছাড়াও নির্বাচনে ব্যাপক কারচুপি ও অনিয়ম দেখে আমরা অন্যান্য সকল প্রার্থী বেলা ১১ টায় ভোট বর্জনের সিদ্ধান্ত নেই। এদিকে নির্বাাচনে ৫ চেয়ারম্যান প্রার্থীর ভোট বর্জনের কথা শুনে অধিকাংশ ভোট সেন্টার ভোটারবিহীন অবস্থায় দেখা যায়। আওয়ামী লীগ মনোনিত প্রার্থী প্রভাষক রুহুল আমিন জানিয়েছেন, নিশ্চিত পরাজয় জানতে পেরে বিএনপির আঁচলে থাকা চেয়ারম্যান প্রার্থীরা ভোট বর্জন করেছে।

Related Articles

Back to top button
Close