সোনাতলা'র সংবাদ

সোনাতলায় সোনালী ব্যাংকের আসবাবপত্র নিতে এসে জনগনের বাধায় ফিরে গেলেন ব্যাংক কর্মকর্তা

সংবাদ আজকালঃ বগুড়া সোনাতলা উপজেলার মধুপুর ইউনিয়নের হরিখালী সোনালী ব্যাংক শাখা ন্থানান্তর করতে গিয়ে ব্যার্থ হয়েছেন ব্যাংক কর্তপক্ষ। সরেজমিনে গিয়ে জানা যায়,স্বাধিনতার পর থেকে হরিখালীতে সোনালী ব্যাংক এর একটি শাখা ছিল দির্ঘ দিন চলে এ ব্যাংকের কার্যক্রম তৎকালীন ব্যাংক কর্মকর্তারা বিভিন্ন পর্যায়ে গ্রাহকদের ঋণ দিয়ে তা তুলতে না পারায় শাখাটি লোকশানে পরিনত হয়। এরপর ব্যাংক কর্তপক্ষ ২০০৯ সালে হরিখালী থেকে শাখাটি স্থানান্তর করে উপজেলা সৈয়দ আহম্মেদ কলেজ ষ্টেশন এলাকায় নিয়ে যায়। স্থানীয় লোকজন অভিযোগ করেন,ব্যাংক কর্তপক্ষ রাতের আধারে তারা চলে যায়,পরদিন স্থানীয় জনগন ও জনপ্রতিনিধিরা ওই শাখার সকল কাগজপত্র ও আসবাবপত্র আটকিয়ে দেয় ও আদালতে একটি মামলা দায়ের করেন। তারপর থেকে বন্ধ রয়েছে এ শাখার কার্যক্রম । এদিকে ওই ব্যাংকের আসবাবপত্র নিয়ে যেতে গতকাল সকালে সোনালী ব্যাংক রাজশাহী বিভাগীয় প্রধান মাহবুবুর রহমানসহ বগুড়া জোন প্রধান ও সোনাতলা থানা পুলিশ গিয়ে আসবাবপত্রসহ কাগজপত্র বের করতে গেলে স্থানীয় লোকজন বাধা প্রদান করলে তারা ফিরে আসে। এব্যাপারে মধুপুর ইউনিয়ন চেয়ারম্যান অসিম কুমার ও হরিখালি উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক জানান হরিখালীর মতো একটি বনিজ্যিক জায়গায় সোনালী ব্যাংক থাকা প্রয়োজন ,আমরা সোনালী ব্যাংক ডেপুটি জেনারেল ,ব্রাঞস ডিপার্টমেন্ট প্রধান কার্যালয় বরাবরে এখানে একটি শাখা খোলার দাবী করি এত ব্যাংক কর্তপক্ষ আস্বাশ প্রদান করেন, যেহেতু এখানে একটি শাখ ছিল,তাতে এ অঞলের মানুষের প্রয়োজনীয় কাগজ পত্রাদী রয়েছে। এজন্য জনগন তাদের দাবি এখানে শাখাটি পুনরায় চালু করা হোক।

Related Articles

Back to top button
Close