বগুড়ার-সংবাদসোনাতলাসোনাতলা'র সংবাদ

সোনাতলায় স্কুলছাত্র শরণ হত্যা মামলায় ৬নং আসামী গ্রেফতার

সোনাতলা (বগুড়া) প্রতিনিধি ঃ বগুড়া সোনাতলার চকনন্দন গ্রামের স্কুলছাত্র শরণ হত্যা
ঘটনার মামলায় ৬নং আসামী জুয়েলকে পুলিশ গ্রেফতার করেছে। সে ওই গ্রামের নুরুল
আজমের ছেলে। সোনাতলা পৌরসভার পিয়ন পদে চাকুরি করে। জুয়েলকে গতকাল শনিবার
আদালতে প্রেরণ করা হয়েছে। এই নিয়ে ওই মামলায় ৬ জন আসামী গ্রেফতার হল। উলে-খ্য
যে, ওই গ্রামের খোকা মিয়ার ৫ শতক জমি একই গ্রামের শাহিন মিয়া এগ্রিমেন্ট
নিয়ে বিদেশি জাতের ঘাস লাগায়। ওই জমির ঘাষ কাটা শেষ না হতেই খোকা মিয়া
জমিটি আবার একই গ্রামের রঞ্জু মিয়ার নিকট এগ্রিমেন্ট রাখে। রঞ্জু মিয়া তার
এগ্রিমেন্ট নেওয়া জমি থেকে ঘাস কেটে নিতে শাহিনকে তাগিদ দেয়। এই নিয়ে
তাদের মধ্যে কথা কাটাকাটি হয়। গত ১৫ মে রঞ্জু মিয়ার এক আত্মীয় উপজেলার
নাপিতবাড়ী মোড়ে আসতে ছিল। পূর্ব ঘটনার জের ধরে শাহিন মিয়ার লোকজন রঞ্জু
মিয়ার ওই আত্মীয়কে মারধর করে। এরপর থেকে দুইপক্ষের মধ্যে উত্তোজনা চলতে থাকে। এরই
জের ধরে পরের দিন বৃহস্পতিবার সকাল ১১টায় পক্ষদ্বয়ের মধ্যে ধাওয়া-পাল্টা ধাওয়া ও সংঘর্ষ
শুরু হয়। সংবাদ পেয়ে পুলিশ ঘটনা স্থলে যায়। পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রন করতে ফাঁকা দুই রাউন্ড
গুলিবর্ষন করে পুলিশ। এ ঘটনায় উভয় পক্ষের যথাক্রমে রঞ্জু মিয়া (৩৫), আবেদ আলী মন্ডল (৪৫),
লাভলি বেগম (৩০), বাদশা মিয়া (৫৫), শরণ মিয়া (১৬) আহত হয়। আহতদের মধ্যে লাভলি
বেগম ও বাদশা মিয়া সোনাতলা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপে-ক্সে এবং অন্যগুলো বগুড়া শজিমেক
হাসপাতালে চিকিৎসাধীন থাকে। ওই হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় ১৯ মে সকাল
অনুমান ৫টায় শরণ মারা যায়।

Related Articles

Back to top button
Close