সোনাতলাসোনাতলা'র সংবাদ

সোনাতলায় স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাংবাদিক সম্মেলন

সোনাতলা (বগুড়া) প্রতিনিধিঃ মঙ্গলবার সকালে সোনাতলা উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে সাংবাদিক সম্মেলন করেছে সোনাতলা উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ।উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের আহবায়ক শাহনেওয়াজ তালুকদার বাব তার লিখিত বক্তব্যে পাঠ করে বলেন , আমি শাহনেওয়াজ তালুকদার বাবু, আহবায়ক সোনাতলা উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগ, যুগ্ম আহবায়ক প্রভাষক রেজাউল করিম রেজা, গোলাম মোস্তফা পান্না, শামীম রাব্বীর নেতৃত্বে সাংগঠনিক নিয়ম-নীতির ভিত্তিতে দক্ষতার সাথে গত এক বছর যাবত সোনাতলায় সাংগঠনিক কার্যক্রম পরিচালনাসহ জননেত্রী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, মাননীয় জাতীয় সংসদ সদস্য জননেতা আব্দুল মান্নান, কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবকলীগ ও বগুড়া জেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের নির্দেশনায় জঙ্গীবাদ বিরোধী এবং বিএনপি-জামাতের বিপক্ষে বিভিন্ন কর্মসূচিতে অংশগ্রহন করে আসছি যা মাননীয় জাতীয় সংসদ সদস্যসহ স্থানীয় আওয়ামী লীগ, সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ ও এলাকাবাসী অবহিত আছে। এই কমিটির নেতৃত্বে সোনাতলা উপজেলায় দশটি সাংগঠনিক ইউনিটের নেতৃত্ব গঠিত হয়েছে। ওই দশটি ইউনিটের ওয়ার্ড কমিটিগুলোর দ্বিতীয় মেয়াদের সম্মেলন সমাপ্তির পথে। আমাদের কমিটি দায়িত্ব নেয়ার পূর্বে সোনাতলা উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের দৃশ্যমান কোন সাংগঠনিক কার্যক্রম ছিলনা। ইতোমধ্যে বর্তমান কমিটি ব্যাপক পরিসরে সম্মেলন ও পূর্ণাঙ্গ কমিটি গঠনের সকল প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছে।
আগামী ২৮ ডিসেম্বর বগুড়া জেলা পরিষদ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বগুড়া জেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের সাবেক সাধারন সম্পাদক ও বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগের বর্তমান দপ্তর সম্পাদক এ্যাড. জাকির হোসেন নবাব জেলা পরিষদের নির্বাচনে নিজেকে সদস্য পদের জন্য প্রার্থী ঘোষণা করে। আর বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের কার্যনির্বাহী সংসদের সিদ্ধান্ত মোতাবেক সংশ্লিষ্ট ওয়ার্ডে সোনাতলা উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি/সাধারন সম্পাদকের সমন্বয়ে ও বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি আলহাজ্ব মমতাজ উদ্দিন ও সাধারন সম্পাদক মজিবর রহমান মজনুর অনুমোদনে ৯ নং সোনাতলা ওয়ার্ডের সদস্য হিসেবে বগুড়া জেলা আওয়ামী লীগের সাবেক যুব ও ক্রীড়া বিষয়ক সম্পাদক এ্যাড. মিনহাদুজ্জামান লীটন মনোনিত হওয়ায় এ্যাড. জাকির হোসেন নবাব আমাদের নেতৃত্বাধীন বর্তমান কমিটির সকলকে তার পক্ষে কাজ করার জন্য হুমকী দিয়ে বলে, তোমরা আমার আমার সাথে কাজ করবে, না করলে কমিটি ভেঙ্গে দেব। আমরা তার কথায় অপারগতা প্রকাশ করি এবং জেলা আওয়ামী লীগ মনোনিত প্রার্থীর বিপক্ষে অবস্থান না নেয়ার সিদ্ধান্ত নেই। এ ঘটনায় হিংসার বশবর্তী হয়ে আমাদের বর্তমান কমিটি থাকা সত্বেও আরেকটি কমিটি ঘোষণা করে যে কমিটির অধিকাংশ সদস্যই যুবলীগের নেতৃত্বে বিভিন্ন ইউনিটের দায়িত্ব পালন করছে। ঘোষিত কমিটির আহবায়ক সোনাতলা উপজেলা যুবলীগের ১৩ বছর যুগ্ম আহবায়ক থাকাকালীন সময়ে কোন ইউনিটের পূর্ণাঙ্গ কমিটি ঘোষণা করতে পারেনি। পরবর্তী সময়ে যুবলীগের সম্মেলনে সভাপতি পদে পরাজিত হওয়ার পর থেকে দলের সাথে তার কোন সম্পর্ক নাই। যুগ্ম আহবায়ক লিচু তার নানা ও জামাতের আমির এনামুল হক মন্ডলকে নিয়মিত মোটর সাইকেলে বহণ করে এবং তার জন্য সক্রিয় ভ‚মিকা পালন করে। এ্যাড. জাকির হোসেন নবাবের ভাই জেলা ছাত্রদলের সাবেক সহ-সভাপতি ও বর্তমান বিএনপির নেতা। জাকির হোসেন নবাব এপিপি থাকা অবস্থায় নাশকতা মামলার আসামী জামাত-শিবির নেতাদের জামিনের ব্যবস্থা করেছিল যা দেশে ব্যাপক আলোচনার সূত্রপাত করেছিল। সেই জাকির হোসেন নবাব এখন দলের মধ্যে বিশৃঙ্খলা সৃষ্টির জন্য নানা অপতৎপরতার আশ্রয় নিচ্ছে।
শাহনেওয়াজ তালুকদার বাবু এ সকল ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান এবং সেই সঙ্গে মাননীয় জাতীয় সংসদ সদস্য জননেতা আব্দুল মান্নান, কেন্দ্রীয় স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতি/সাধারন সম্পাদক ও বগুড়া জেলার স্বেচ্ছাসেবকলীগের সভাপতির সুদৃষ্টি কামণা করেন।
এ সময় উপস্থিত ছিলেন ,উপজেলা যুবলীগের সভাপতি ফিদা হাসান খান টিটো, উপজেলা স্বেচ্ছাসেবকলীগের যুগ্ম আহবায়ক প্রভাষক রেজাউল করিম রেজা, প্রভাষক গোলাম মোস্তফা পান্না, শামীম রাব্বী, উপজেলা শ্রমিকলীগের আহবায়ক জাহেদুল ইসলাম , উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মাহমুদুল হাসান রতন।

Related Articles

Back to top button
Close