গোবিন্দগঞ্জে রিমান্ডের ভয় দেখিয়ে পুলিশের চাঁদা দাবী

rafel shahabrafel shahab
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  06:12 PM, 28 November 2019

গোবিন্দগঞ্জ (গাইবান্ধা) প্রতিনিধি:গাইবান্ধার গোবিন্দগঞ্জে রিমান্ডের ভয় দেখিয়ে আসামীর পরিবারের নিকট চাঁদা দাবীর অভিযোগ পাওয়া গেছে গোবিন্দগঞ্জ থানার এসআই জিল্লুর রহমানের বিরুদ্ধে।

বুধবার আদালত চত্বরেই আসামীর মা জাহানারা বেগমের নিকট ১০ হাজার টাকা চাঁদা দাবী করা হয়। এ বিষয়টি তাৎক্ষণিক আদালতকে অবগত করেন জাহানারা বেগম।

জানা গেছে, পলাশবাড়ী উপজেলার নান্দিনশহর এলাকার খাদেম আলীর ছেলে মামুন মিয়াকে গত নভেম্বর মঙ্গলবার গরু চুরির অভিযোগে পুলিশ গোবিন্দগঞ্জ উপজেলার বালুয়া বাজার থেকে গ্রেফতার করে। গ্রেফতারের পর পুলিশ বুধবার গোবিন্দগঞ্জ সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট আদালতে মামুনকে প্রেরণ করেন। এদিকে, এসআই জিল্লুর রহমান রিমান্ডের ভয় দেখিয়ে আসামীর পরিবারের কাছে ১০ হাজার টাকা চাঁদা দাবী করে আসছিল।

আসামী মামুনের মা জাহানারা বেগম এতে অপারগতা প্রকাশ করে ২ হাজার টাকা দিতে চান। কিন্তু তাতে জিল্লুর রহমান রাজী না হয়ে জাহানারা বেগমকে অকথ্য ভাষায় গালি-গালাজ করে তার কাছে থাকা মোবাইল ফোনটি কেড়ে নেয়। বিষয়টি তাৎক্ষণিক জাহানারা বেগম আদালতকে অবগত করেন।

জাহানারা বেগম সাংবাদিকদের বলেন, এসআই জিল্লুর রহমান তার ছেলে মামুনকে রিমান্ডে নিবেন। তাকে যদি ১০ হাজার টাকা দেয়া হয় তাহলে তিনি রিমান্ড আবেদন করবেন না। আমি তাকে ২ হাজার টাকা দিতে চাই। কিন্তু তাতে তিনি রাজি হননি। আমাকে অশালীন কথাবার্ত বলে ফোন কেড়ে নেন। বিষয়টি তাৎক্ষণিক আদালতকে অবগত করি। এরপর এসআই জিল্লুর রহমান আমাকে ফোনটি ফেরত দেন।

এ বিষয়ে গোবিন্দগঞ্জ থানার এসআই জিল্লুর রহমান বলেন, আসামী মামুনকে আদালতে হাজির করে সাত দিনের রিমান্ড চাওয়া হয়। আদালত রিমান্ড না মঞ্জুর করে তাকে জেল হাজতে পাঠান। এখানে টাকা চাওয়ার কোনো প্রশ্নই উঠেনা। বিষয়টি কেউ জাহানারা বেগমকে দিয়ে ভিন্নখাতে প্রভাবিত করার চেষ্টা করছে।

এব্যাপারে গোবিন্দগঞ্জ থানার ওসি একেএম মেহেদী হাসানের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমরা বিষয়টি জেনেছি। এনিয়ে উচ্চ পর্যায়ে আলোচনা করা হয়েছে। তার বিরুদ্ধে বিভাগীর ব্যবস্থা গ্রহণের কথাও বলেন তিনি।

আপনার মতামত লিখুন :