শুক্রবারের আমল

rafel shahabrafel shahab
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  09:21 AM, 06 August 2021

শুক্রবার নামাজ পড়া নতুন জামা পরে মসজিদে যাওয়া শরীরে আতর লাগানো যেমন সুন্নত ঠিক শুক্রবারের জন্য রয়েছে কিছু আমল।

◉ ফজর পড়ে কুরআন তিলাওয়াত করুন, বিশেষ করে সূরা আল-কাহফ পড়ে নিতে পারেন।
যে ব্যক্তি জুমআর দিন সূরা কাহফ পাঠ করে, সে ব্যক্তির জন্য দুই জুমআর মধ্যবর্তী কাল জ্যোতির্ময় হয়ে যায়। (হাদিস সম্ভার:১৪৫৭)

◉ ইশরাক সালাত আদায় করা।

◉ কাজ-কর্ম গুছিয়ে রাখা যাতে জুমু’আর আযানের পূর্বেই মসজিদের উদ্দেশ্যে রওয়ানা দেয়া যায়।
শুক্রবার দিন মসজিদের প্রতিটি দরজায় ফেরেশতারা অবস্থান গ্রহণ করে এবং আগমনকারীদের নাম ক্রমানূসারে লিপিবদ্ধ করতে থাকে। ইমাম যখন (মিম্বরে) বসেন, তারা লিপিসমূহ গুটিয়ে নেয় এবং যিক্‌র (খুতবা) শোনার জন্য আসে। মসজিদে যে আগে আসে তার উদাহরণ সে ব্যাক্তির মত যে একটি উটনী কুরবানী করেছে। তার পরবর্তীজনের দৃষ্টান্ত তার মত যে একটি গাভী কুরবানী করেছে। তার পরবর্তীজনের দৃষ্টান্ত তার মত যে ভেড়া কুরবানী করেছে এবং তার পরবর্তীজনের দৃষ্টান্ত তার মত যে একটি মুরগি দান করেছে। পরবর্তীজনের দৃষ্টান্ত তার মত যে একটি ডিম দান করেছে। (সহীহ মুসলিম:১৮৫৭)

◉ মেসওয়াক আতর ব্যবহার করা, সুন্দর কাপড় পরিধান করা।

◉ দুপুরে খাওয়ার পরে কিছুক্ষন বিশ্রাম নেয়া সুন্নাহ, তাই বিশ্রাম নিন।

◉ আসরের সালাত শেষে সালাতের স্থানেই বেশ কিছুক্ষন বসে থাকুন, সম্ভব হলে মাগরিব আদায় করে তারপর উঠুন।
জুমু‘আর দিনে আসরের শেষ সময়ে মাগরিবের পূর্বে দু‘আ কবুল হয়। (আবু দাউদ: ১০৪৮)

◉ আসরের পর থেকে মাগরিব পর্যন্ত যত দুয়া জানা আছে তা পড়তে থাকুন, যত বেশি সম্ভব দুরুদ পড়ুন।
জুমু‘আর দিনে বেশি দরুদ পড়লে আল্লাহর নবী তার জন্য শাফায়াতকারী ও সাক্ষী হবেন। (বায়হাকি: ২৭৭১)

◉ সবার জন্য দুয়া করুন, সবার জন্য চাইতে থাকুন। একজন মুসলিম অন্য কারো জন্য দুয়া করলে ফেরেশতারাও আল্লাহর কাছে বলেন “অনুরুপ”। তাই সকল মুসলমানদের জন্য দুয়া করুন।

◉ দুয়া কবুল হবে বিশ্বাস করেই দুয়া করুন, ধীরে সুস্থে দুয়া করুন, হাত তুলে দুয়া করুন, কেঁদেকেটে দুয়া করুন।

 

আপনার মতামত লিখুন :