সূরা কাহফ (গুহা)

rafel shahabrafel shahab
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  12:24 PM, 05 June 2020

পবিত্র ক্বুর’আনে উল্লেখযোগ্য একটি সূরা। ১৮ নম্বরে স্থান পাওয়া ঘটনাবহুল এই মাক্কী সূরাতে রয়েছে সর্বমোট ১১০টি উল্লেখযোগ্য আয়াত। রয়েছে মোট ৭টি অর্থবহ ঘটনা।

ঘটনাগুলি মোটামুটি এরকম:

১. আসহাবে কাহাফ তথা গুহাবাসীর ঘটনা। কয়েকজন মুসলিম যুবক রাক্বিম নামক এলাকার অত্যচারী মুশরিক রাজার শাস্তির ভয়ে এলাকা ছেড়ে গুহায় অবস্থান নেয়। প্রায় তিনশত নয় বছর গুহায় অবেচতন অবস্থায় থাকে রবের ইশারায় এবং মহান আল্লাহ্‌র ইচ্ছায় কুকুরের পাহারা ও আলো-ছায়ার অলৌকিক খেলায় সুরক্ষা পায় তারা। এরপর সকলের মৃত্যু বরণ।

.
২. আল্লাহ’র রাসূল (সাল্লাল্লাহু য়ালাইহি ওয়া সাল্লাম)-কে মক্কার কাফির-মুশরিকেরা কয়েকটি প্রশ্ন করে। শর্ত জুড়ে দেয়, তিনি(সা:) যদি উত্তর দিতে পারেন তাহলে তারা তার (সা:) নবুওয়ত-এর দাবী মেনে নিবে। রাসূল(সা:) মুখ ফসকে বলে ফেলেন “আমি আগামীকাল বলব”। কিন্তু ইন-শা-আল্লাহ না বলার কারণে ১৫ দিন ওহী বন্ধ থাকে এবং কাফির-মুশরীকদের ঠুনকো আনন্দ বাড়তে থাকে। অত:পর ওহী নাযিল হয় আর তাতে ইন-শা-আল্লাহ বলার গুরুত্ব আরোপ করা হয়।

.
৩. দুইজন বাগান মালিকের ঘটনা। যার একজন সম্পদশালী কিন্তু আল্লাহর এহসানে অস্বীকারকারী, অহংকারী। আর অন্যদিকে আরেকজন অল্পেতুষ্ট অপেক্ষাকৃত কম সম্পদশালী।অত:পর এই গর্বের কারণে ওই বাগানের মালিকের বাগান ধ্বংস, সর্বনাশ, ভরাডুবি।
.

৪. মক্কার উচ্চ শ্রেণীর কাফির মুশরিকেরা রাসুল(সাল্লাল্লাহু ‘য়ালাইহি ওয়া সাল্লাম)-কে প্রস্তাব দিলেন তারা ঈমান আনবে। শর্ত হলো যখন তারা মজলিশে আসবে তখন দু:স্থ গরীব মু’মিনদেরকে মজলিশ থেকে তুলে দিতে হবে। ইসলামের বৃহত্তর স্বার্থে রাসূল (স:) তাদের কথায় প্রায় রাজীই হয়ে গিয়েছিলেন; কিন্তু মহান আল্লাহ্‌ তাকে (সা:) নিষেধ করে দেন তাদের এই প্রস্তাব গ্রহণ করা থেকে।
.

৫. আদম (আলাইহি ওয়া সাল্লাম)-কে কাঁদামাটি থেকে সৃষ্টি আর ইবলিশের (মিথ্যা অহংকারবশত:) সিজদা করতে অনিহা।

.
৬. মূসা (আলাইহি ওয়া সাল্লাম) ভেবেছিলেন তার চাইতে আর কেউ জ্ঞানী বান্দা দুনিয়াতে নেই; কিন্তু মহান আল্লাহ্‌ তার চাইতে বেশী প্রজ্ঞাবান ও ধৈর্যশীল বান্দা খিজির (আলাইহি ওয়া সাল্লাম) এর সাথে মিলিত করিয়ে দেন। তখন মূসা(আ:) পদে পদে বুঝতে পারেন তার চাইতেও জ্ঞানী বান্দা দুনিয়াতে আছে। খিজির (আ:) কয়েকটি ঘটনার মধ্যে দিয়ে হিকমাহ আরর সবরের শিক্ষা দলেন মুসা(আ:)-কে।

.
৭. জুলকারনাইন বাদশাহ দুই পাহাড় ঘেরা এমন একটি এলাকায় গমন করেন যে এলাকায় ইয়া’জুজ-মা’জুজ বিপর্যয় সৃষ্টি করেছিল। সর্বশক্তিমান আল্লাহ্‌র ইচ্ছায় জুলকারনাইন নিজ বাহুবলে দুই পাহাড়ের মধ্যবর্তী সংযোগস্থলে তামা ও লোহা আগুনে পুড়িয়ে দেওয়াল তৈরী করে বিপর্যয়-সৃষ্টিকারী জাতিকে আটকিয়ে রেখছেন। যারা এখন পর্যন্ত বন্দীবস্থায় আটকে আছে। ক্বিয়ামতের আগে তারা সদলবলে বেড়িয়ে আসবে আল্লাহ’র ইচ্ছায়।
.

আমল:
———————————
রাসূল(সাল্লাল্লাহু ‘য়ালাইহি ওয়া সাল্লাম) বলেছেন:

“যে ব্যক্তি জুমু’আর দিন অথবা রাতে সূরা কাহফ তিলোওয়াত করবে, আল্লাহ্‌ তার জন্য দুই জুমুআর মধ্যবর্তী সময়কে আলোকিত করে দিবেন”
[জামেউস সাগীর, হাদিস নং:৬৪৭০]

.

আজকে জুমু’য়া বার। রমাদ্বানের সাথে যোগ হলো জুমু’আর রহমের ভান্ডার। আমলে সালেহ করে দিন হউক পার। দরুদ, কাহাফ আর বেশী বেশী ইস্তিগফার।।।

#জুমুয়া
#রহম_আর_ক্ষমা

রাজিব হাসান
ইসলামি বই লেখক, ফেসবুক এক্টিভিস্ট।

আপনার মতামত লিখুন :