সারিয়াকান্দিতে ভটভটির চাকায় পৃষ্ট হয়ে একজন নিহত

rafel shahabrafel shahab
  প্রকাশিত হয়েছেঃ  11:32 AM, 21 February 2020

জাহিদুল ইসলাম জাহিদ,সারিয়াকান্দি বগুড়া প্রতিনিধি :– বগুড়ার সারিয়াকান্দি স্যালো ইঞ্জিন দ্বারা চালিত জানবাহনের নাম  ভটভটি৷ যাহা সরকারি ভাবে নিষিদ্ধ৷ উক্ত ভটভটি চাকায় পৃষ্ট হয়ে একজন নিহত হয়েছে৷
জানা যায় বৃহস্পতিবার সকাল সাড়ে দশটায় সারিয়াকান্দি উপজেলার চন্দনবাইশা ইউনিয়নের ঘুঘুমারি প্রামাণিক পারা গ্রামের সরু রাস্তা দিয়ে ঐ ভটভটিতে একজন গাছ ব্যাবসায়ী গাছের গুড়ি বোঝাই দিয়ে নিয়ে যাচ্ছিলেন৷
বাবলু প্রাং এর পঁাচ বছরের ছেলে শিশু জান্নাতুল উক্ত  ভটভটির চাকায় পৃষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলে নিহত হয়েছে৷খবর পেয়ে চন্দনবাইশা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের এস আই আলিম একা এসে জোর পূর্বক লাশ  থানায় নিয়ে যেতে চাইলে নিহতের আত্মীয় স্বজন বাধা দিলে এস আই আলিম আব্বাস নামে নিহতের জেঠা ও মুনছের এর গালে চর মারে৷ এতে সাধারণ জনতা ক্ষিপ্ত হয়ে এস আই আলিম কে মারমুখো আক্রমণ করে৷ অবস্থার বেগতিক দেখে কয়েকজন সচেতন ব্যাক্তি এস আই আলিম কে একটি ঘরে দরজা বন্দ করে নিরাপদ করে৷ বাহিরে ক্ষিপ্ত জনতা হইচই করতে থাকে৷
এ অবস্থায় প্রায় দের ঘন্টা পর চন্দনবাইশা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান দুলাল গ্রাম্য পুলিশ সহ হাজির হয়ে সাধারণ জনতাকে অনুরোধ করে এবং বিচারের দায়িত্ব নিয়ে এস আই আলিম কে নিরাপদে চন্দনবাইশা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে পৌছায়ে দেয়৷ পরে চেয়ারম্যান দুলাল নিহতের বাবা-মা আত্মীয় স্বজন গ্রামের মুরব্বি ও গণ্যমান্য ব্যক্তিদের সাথে নিয়ে নিহত ঘটনাটি সমাধান করার প্রক্রিয়া চালায়৷ কিন্তু ঘাতক ভটভটি চালক ভটভটি রেখে পালিয়ে যায়৷
অপরদিকে অসাধু গাছ ব্যাবসায়ীদের বন বিভাগের আইনবিধি অমান্য করে যেনোতেনো ভাবে যে কোনো বয়সের এবং যে কোনো প্রজাতির গাছ কর্তন করে পরিবেশের ভাসাম্যকে ক্ষতিগ্রস্ত করছে৷

আপনার মতামত লিখুন :